ওভারলোড রিলে কি ? ওভারলোড রিলে কোথায় ব্যবহার করা হয় ?

ওভারলোড-Overload Relay রিলে ইন্ডাস্ট্রিতে মোটর সেফটির জন্য বিভিন্ন জায়গায় প্রচুর পরিমাণে ব্যবহার করা হয়ে থাকে ।শুধু মটর সেফটির জন্য না,ইলেকট্রিক্যাল ইঞ্জিনিয়ারিং এর বিভিন্ন জায়গায় যেখানে সেফটির বেশি প্রয়োজন হয় সেখানে ওভারলোড রিলে ব্যবহার করা হয়ে থাকে ।ওভারলোড রিলে বহুল ব্যবহার রয়েছে।এই পোষ্টের মাধ্যমে আমরা জানবো ওভারলোড রিলে কি ?ওভারলোড রিলে কোথায় ব্যবহার করা হয় ?ওভারলোড রিলে কেন ব্যবহার করা হয় ?ওভারলোড রিলে ওয়ার্কিং প্রিন্সিপাল টা কি?এই সকল বিষয় আমরা জানব।

ওভারলোড রিলে কিঃ

একটি তাপ ওভারলোড-Overload Relay রিলে একটি বিমেটালিক স্ট্রিপের-bimetallic strip বৈদ্যুতিন-তাপীয় বৈশিষ্ট্যের নীতিতে কাজ করে। … যখন বিমেটালিক-bimetallic উত্তাপ বাড়ায়, তখন ওভারলোড রিলে তে যে ট্রিপ ফাংশন থাকে ওটা চালু হয়ে গিয়ে কন্টাক্টরের কয়েলের বিদ্যুৎ সরবরাহকে বিচ্ছিন্ন করে, এভাবে ওভারলোড রিলে ট্রিপ করে মোটরের বৈদ্যুতিক প্রবাহ এবং মোটরটির বর্তমান প্রবাহকে ভঙ্গ করে মটর কে সেভ করে । এভাবে ওভারলোড রিলে কাজ করে ।

ওভারলোড রিলে কোথায় ব্যবহার করা হয়ঃ

ওভারলোড রিলে বেশি ব্যবহার করা হয় ইন্ডাস্ট্রিতে থ্রি ফেজ মোটর/ সিঙ্গেল ফেজ মোটর সেফটির জন্য।থার্মাল ওভারলোড রিলে বৈদ্যুতিক মোটরের সেফটির জন্য ব্যবহৃত এমন একটা ডিভাইস,যে ডিভাইসে একটা নির্দিষ্ট এম্পিয়ার সেট করা যায়।এখন এই থার্মাল ওভারলোড রিলে হয়ে যে মোটরটি চালনা করা হয়,এবং থার্মাল ওভারলোড রিলে তে যে এম্পিয়ার সেট করা হয়।ওই এম্পিয়ার এর বেশি যদিও এই মোটরটি নিতে চাই।তাহলে অটোমেটিকলি থার্মাল ওভারলোড রিলে ট্রিপ করে অতিরিক্ত কারেন্ট প্রবাহ বন্ধ করে দেয়।এখানে মূলত থার্মোকাপল ব্যবহার করা হয় যা অতিরিক্ত কারেন্ট প্রবাহের দরুন গরম হয়ে ওভারলোড রিলে ট্রিপ করে অতিরিক্ত কারেন্ট প্রবাহ বন্ধ করে দেয় এবং মোটরকে সেভ রাখে। তাহলে বুঝতে পারলেন যে ওভারলোড রিলে কোথায় ব্যবহার করা হয় এবং ওভারলোড রিলে কিভাবে কাজ করে।

 

ওভারলোড রিলে কেন ব্যবহার করা হয়ঃ

আমি নিচে ওভারলোড রিলে কয়েকটি ব্যবহার উল্লেখ করছি।।

  1. অতিরিক্ত কারেন্ট প্রবাহ থেকে মোটর কে সুরক্ষা দেয়ার জন্য ওভারলোড রিলে বেশি ব্যবহার করা হয়ে থাকে।
  2. অত্যাধিক তাপ হতে মোটরকে সুরক্ষা দেয়ার জন্য ওভারলোড রিলে ব্যবহার করা হয়ে থাকে ।
  3. এছাড়া কিছু নির্দিষ্ট ফল্ট যেমন ফেজ টু ফেজ,পেজ টু গ্রাউন্ড ইত্যাদি ত্রুটি থেকে মোটরকে ওভারলোড রিলে সুরক্ষা প্রদান করে থাকে ।

ওভারলোড রিলে কে মোটর সেফটির জন্য ভালোভাবে ব্যবহার করার জন্য,এই ওভারলোডের সাথে ম্যাগনেটিক কন্টাক্টর অন অফ সুইচ লাগে।নিচে ওভারলোড রিলে কে মোটর সেফটির জন্য ব্যবহার করার জন্য কিভাবে সংযোগ করতে হয় তার ডায়াগ্রাম আমি দিয়ে দিলাম।

এখন ডায়াগ্রামটি আপনাদের ভালোভাবে বুঝতে হবে ।এই ডায়াগ্রামটি যদি আপনি ভালভাবে না বোঝেন তাহলে কিন্তু আপনি কানেকশন করতে পারবেন না । Thermal Overload Relay মটর সেফটির জন্য বিভিন্ন মোটর কন্ট্রোল সার্কিটে ব্যবহার করা হয় ।এখন আমরা জেনে নেব এই কন্ট্রোল সার্কিট তৈরী করতে আমাদের কি কি লাগবে।

  1. ON Push Button Switch.
  2. Off push Button Switch.
  3. Overload Relay.
  4. Magnatic Contractor.
  5. Motor.

উপরের চিত্রটি লক্ষ্য করুন এখানে প্রথমে পেজ লাইন থেকে পেজ লাইন অফ সুইচের একপাশে দেয়া হয়েছে । তারপর অফ সুইচের অন্যপাশ থেকে  ফেজ লাইন ওভারলোড রিলের নরমালি ক্লোজের একপাশে সংযোগ করা হয়েছে ।ওভারলোড রিলে এর নরমালি ক্লোজ এর অন্যপাশ থেকে ফেজ লাইন অন সুইচ এর একপাশে সংযোগ দেয়া হয়েছে ।অন সুইচ এর অন্যপাশ থেকে পেজ লাইনটি ম্যাগনেটিক কন্টাক্টর এর কয়েলে অর্থাৎ A1 এর সাথে সংযোগ করা হয়েছে ।যাতে অন সুইচ অন করার সাথে সাথে ম্যাগনেটিক কন্টাক্টর পাওয়ার পাবে এবং ম্যাগনেটিক কন্টাক্টর অন হয়ে যাবে ।ম্যাগনেটিক কন্টাক্টর এর অন্যপাশে A2  নিউট্রাল লাইন দেয়া হয়েছে ।

এখন যেহেতু এখানে ম্যাগনেটিক কন্টাক্টর কে অন করার জন্য পুষ বাটনসুইচ ব্যবহার করা হয়েছে ।আর আমরা জানি যে পুষ বাটন সুইচ অন করে ধরে রাখলে এটা অন হবে আর ছেড়ে দিলে এটা অফ হয়ে যাবে ।কিন্তু এখানে অন পুষ বাটন সুইচ অন করে আবার ছেড়ে দিলে ম্যাগনেটিক কন্টাক্টর কিন্তু অন হয়েই থাকবে ।এটা কিভাবে হবে সেটা আপনাকে বুঝতে হবে ।এখানে কানেকশনের মাধ্যমে ল্যাচিং করা হয়েছে ।এই ল্যাচিং সিস্টেমটা আপনাকে ভালোভাবে বুঝতে হবে ।কারণ ইন্ড্রাস্ট্রিতে পুষ বাটন সুইচ ব্যবহার করা হয় যেকোনো কন্ট্রোলিং এর ক্ষেত্রে ।ইন্ডাস্ট্রিতে প্রত্যেকটা কন্ট্রোলিং ল্যাচিং করা হয় বিভিন্ন কানেকশনের মাধ্যমে ।এজন্য ল্যাচিং সিস্টেমটা আপনাকে ভালোভাবে বুঝতে হবে ।

উপরের চিত্রে লক্ষ্য করুন প্রত্যেকটা ম্যাগনেটিক কন্টাক্টরে নরমালি ওপেন এবং নরমালি ক্লোজ রয়েছে বিভিন্ন কন্ট্রোলিং সিস্টেমে যাতে এগুলো ব্যবহার করতে পারি । ল্যাচিং করার জন্য পুষ বাটন এর একপাশ থেকে ফেজ লাইন টেনে নেওয়ার পর ম্যাগনেটিক কন্টাক্টর এর যেকোন নরমালি ওপেন এর একপাশে ফেজ লাইন সংযোগ করে দিতে হবে ।তারপর নরমালি ওপেনের অন্যপাশ থেকে ফেজ লাইন টেনে নিয়ে ম্যাগনেটিক কন্টাক্টর এর কোয়েলের A1 এর সাথে সংযোগ করে দিতে হবে ।তাহলে ল্যাচিং হয়ে যাবে ।

এখন কিভাবে ল্যাচিং সিস্টেমটা কাজ করে সেটা আপনাকে বুঝতে হবে । দেখুন অন পুষ বাটন সুইচ অন করার সাথে সাথে যখন ম্যাগনেটিক কন্টাক্টর অন হবে তখন কিন্তু ম্যাগনেটিক কন্টাক্টর এর নরমাল ওপেন গুলো নরমালি ক্লোজ হয়ে যাবে এবং নরমালি ক্লোজ গুলো নরমাল ওপেন হয়ে যাবে অটোমেটিক্যালি ।ম্যাগনেটিক কন্টাক্টর এর নরমালি ওপেন যখন নরমালি ক্লোজ হয়ে যাবে ।উপরের চিত্রে লক্ষ্য করুন ম্যাগনেটিক কন্টাক্টর এর নরমালি ওপেনে আমি ফেজ লাইন দিয়ে দিয়েছি ।ম্যাগনেটিক কন্টাক্টর যখন অন হবে তখন ফেজ লাইননরমালি ওপেনের অন্যপাশে চলে যাবে এবং বাইপাস ফেজ লাইনের একটা ক্লোজ সার্কিট তৈরি করবে ।এই কারণে পুষ বাটন টি অন করে ছেড়ে দেয়ার পরও ম্যাগনেটিক কন্টাক্টর অন থাকবে ।

আশা করি আপনারা ল্যাচিং সিস্টেমটা বুঝতে বুঝতে পেরেছেন । এখন সার্কিটটা অফ হবে কিভাবে ।সার্কিটের প্রথমেই দেখুন অফ পুষ বাটন সুইচ সংযোগ করা হয়েছে । এই অফ পুষ বাটন সুইচ অন করে ছেড়ে দেওয়ার পর পুরো পেজ লাইনটা কাট অফ হয়ে অফ হয়ে যাবে ।এর ফলে ম্যাগনেটিক কন্টাক্টর অফ হয়ে যাবে ।তখন ম্যাগনেটিক কন্টাক্টর এর সাথে কোন মোটর লাগানো থাকলে মোটরটি অফ হয়ে যাবে ।আশা করি আপনার সার্কিটটা ভালোভাবে বুঝতে পেরেছেন ।

এখানে কানেকশন কিভাবে করা হয়েছে আপনারা আশা করি এটা বুঝতে পেরেছেন ।কিন্তু ওভারলোড রিলে কিভাবে এই সার্কিট কে সেফটি প্রদান করবে ।অর্থাৎ এখানে ওভারলোড রিলের কাজ কি ?কারণ এখানে সাধারণভাবে ওভারলোড রিলে ছাড়াও কিন্তু সার্কিট তৈরি করা যায় ।এখন আপনাদের বলি যে এইখানে ওভারলোড রিলে কি কাজ করে এবং কি কাজ করে আপনার মোটরকে সেফটি প্রদান করবে ।

প্রত্যেকটা ওভারলোড রিলের একটা নির্দিষ্ট এম্পিয়ার ক্ষমতা রয়েছে ।কিছু কিছু রিলে আবার অ্যাডজাস্টেবল হয়ে থাকে ।অ্যাডজাস্টেবল মানে হচ্ছে এই ওভারলোড রিলেতে বিভিন্ন এম্পিয়ার আপনি সেট করে দিতে পারবেন ।এখন এই সার্কিটের মাধ্যমে আপনি যে মোটরটি চালাবেন সেটা সিঙ্গেল ফেজ হোক বা থ্রি ফেজ হোক । সেই মোটরের কিন্তু অবশ্যই একটা নির্দিষ্ট এম্পিয়ার ক্ষমতা থাকবে ।আপনি যে মোটর চালানোর জন্য এই ওভারলোড রিলে সার্কিট তৈরি করবেন ।সেই মোটরের অ্যাম্পিয়ার ক্ষমতা আপনি দেখে নিবেন ।তারপর সেই এম্পিয়ার ক্ষমতা অনুযায়ী আপনাকে ওভারলোড রিলে সিলেক্ট করতে হবে ।

সার্কিটটি ভালোভাবে কাজ করানোর জন্য ওভারলোড রিলের এম্পিয়ার ক্ষমতা এবং মোটরের এম্পিয়ার ক্ষমতা এক হতে হবে ।তা না হলে সার্কিটে100% সেফটি হবে না ।আশা করি এই ব্যাপারটা বুঝতে পেরেছেন ।এখন আপনারা সার্কিটটা এই নিয়ম অনুযায়ী তৈরি করবেন । সার্কিট তৈরি করার পর মটরের কানেকশন দিয়ে মোটর টা আপনি চালাতে থাকবেন ।

এখন ওভারলোড রিলে এর কাজ আপনাকে বুঝতে হবে ।ওভারলোড রিলে তে যে এম্পিয়ার সেট করে দিবেন ।থার্মাল ওভারলোড রিলে থেকে এই এম্পিয়ার এর বেশি কিন্তু যেতে দিবে না ।এই সার্কিটে কিন্তু ওভারলোড রিলে থেকেই মোটরে কানেকশন দেয়া হয় ।মোটরের যে এম্পিয়ার ক্যাপাসিটি এবং ওভারলোড রিলে এর এম্পিয়ার ক্যাপাসিটি যদি এক সমান হয় তাহলে কোন সমস্যা ছাড়াই মটর চলবে ।এখন কোন কারণে যদি মোটরটি বেশি এম্পিয়ার নিতে চাই তাহলে কিন্তু ওভারলোড রিলে বন্ধ হয়ে যাবে ।অর্থাৎ ওভারলোড রিলে এর নরমাল ক্লোজ নরমাল ওপেন হয়ে যাবে ।এর ফলে মোটরের পাওয়ার সরবরাহ বন্ধ হয়ে যাবে ।এবং মোটরটি অফ হয়ে যাবে ।তাহলে বুঝতেই পারলেন ওভারলোড রিলে এখানে কি কাজ করে।

ওভারলোড ওভারলোড রিলে তে যে এম্পিয়ার সেট করে দেয়া হবে এই অ্যাম্পিয়ারের বেশি যদি মোটরের নিতে চাই তাহলে এটা অফ হয়ে যাবে এবং মোটরকে সেভ করবে মোটর নষ্ট আর হাত থেকে বাঁচাবে ।এখন বলতে পারেন মটরের ক্যাপাসিটর থেকে বেশি এম্পিয়ার কেন মটর নিতে চাইবে।দেখুন ইন্ডাস্ট্রিতে যেকোনো মোটর কে চালনা করা হয় কোন মেকানিক্যাল ফাংশনকে চালানো করার জন্য ।অর্থাৎ যেকোন মেশিনের সাথে মোটর লাগানো থাকে ।মেশিনের মেকানিক্যাল ফাংশনে কোন সমস্যার কারণে যদি মোটরটি চলতে বাধা পায় ।তখন মেকানিক্যাল ফাংশনে যতই সমস্যা থাকুক মোটরে কিন্তু পাওয়ার থাকার কারণে মোটর চলার জন্য চেষ্টা করে ।

মোটর স্বাভাবিকভাবে চলার জন্য বাধা পাওয়ার পরও যখন মটর চলার জন্য চেষ্টা করে । অতিরিক্ত শক্তি দিয়ে মোটর চলার চেষ্টা করার জন্য মোটরের এম্পিয়ার ক্যাপাসিটি বেড়ে যায় ।বেশি সময় এই কার্যক্রম চলতে থাকলে অতিরিক্ত কারেন্ট ক্যাপাসিটির কারণে মোটরটি গরম হয়ে যাবে এবং নষ্ট হয়ে যাবে ।কিন্তু এখানে যদি আপনি থার্মাল ওভারলোড রিলে সার্কিট ব্যবহার করেন ।তখন মোটরটি যতই বেশি এম্পিয়ার ক্যাপাসিটি নেয়ার চেষ্টা করুক না কেন থার্মাল ওভারলোড রিলে কিন্তু বেশি এম্পিয়ার দিতে পারেনা ।এর ফলে ওভারলোড রিলে এর নরমাল ক্লোজ নরমাল ওপেন হয়ে যায় ।ফলে মোটরের পাওয়ার সরবরাহ বন্ধ হয়ে যায় ।এর ফলে মোটরটি অফ হয়ে যায় এবং মোটরটি সেভ থাকে নষ্ট হয় না ।

আশা করি আপনারা বুঝতে পেরেছেন থার্মাল ওভারলোড রিলের কাজ কি এবং কেন একটা সার্কিট এটা ব্যবহার করা হয় ।

100% LikesVS
0% Dislikes

Leave a Comment